বিয়ের আগে যৌন সম্পর্ক নিষিদ্ধ হচ্ছে ইন্দোনেশিয়ায়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬:১০

বিয়ের আগে অবৈধ শারীরিক সম্পর্ক নিষিদ্ধ হতে যাচ্ছে ইন্দোনেশিয়ায়। দেশটির পার্লামেন্ট চলতি মাসেই এ সংক্রান্ত একটি নতুন ফৌজদারি আইন পাস করতে যাচ্ছে। আইন অনুযায়ী বিয়ে ছাড়া যৌন সম্পর্ক স্থাপনকারীকে পেতে হবে এক বছরের কারাদণ্ড।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, আইনটি পাস করানোর সঙ্গে জড়িত রাজনীতিবিদ বামবাং উরিয়ান্তো বলেছেন, আগামী সপ্তাহের প্রথম দিকে কোডটি পাস হতে পারে। আইনটি পাস হলে ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক এবং বিদেশিদের জন্য একইভাবে প্রযোজ্য হবে।

তবে এ ধরণের সম্পর্কের শাস্তি তখনি প্রদান করা হবে যখন কোনো পক্ষ অপর পক্ষের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করবে। যেমন কোনো বিবাহিত দম্পতি যদি একে অপরের বিরুদ্ধে বিবাহ বহির্ভুত যৌন সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ করে তাহলে প্রমাণ সাপেক্ষে অপরাধী শাস্তি পাবে।

আইন অনুযায়ী অবিবাহিত সন্তানের অভিভাবকরা মামলা করতে পারবে। এছাড়াও আইন অনুযায়ী বিয়ের আগে সহবাসও নিষিদ্ধ করা হবে এবং দোষী সাব্যস্ত ব্যক্তিদের ছয় মাসের কারাদণ্ড হতে পারে।

রয়টার্স জানিয়েছে, পর্যটন নির্ভর দ্বীপ রাষ্ট্র ইন্দোনেশিয়ায় ছুটি কাটাতে এবং ব্যবসার কাজে অনেকেই আসেন বিদেশ থেকে। এধরনের নিয়ম কার্যকর হলে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হতে পারে। এ কারণে দেশটির ব্যবসায়ীরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

ইন্দোনেশিয়ার এমপ্লয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন (এপিআইএনডিও) এর ডেপুটি চেয়ারপারসন শিন্তা উইডজাজা সুকামদানি বলেছেন, ‘ব্যবসায়িক ক্ষেত্রের জন্য, এই প্রথাগত আইনের প্রয়োগ আইনি অনিশ্চয়তা তৈরি করবে এবং বিনিয়োগকারীদের ইন্দোনেশিয়ায় বিনিয়োগের বিষয়ে পুনর্বিবেচনা করতে বাধ্য করবে।’

কোডের আগের খসড়াটি ২০১৯ সালে পাস হওয়ার কথা ছিল কিন্তু হাজার হাজার লোকজন দেশব্যাপী বিক্ষোভের জন্ম দিয়েছে। রাজধানী জাকার্তায় সংঘটিত প্রধান সংঘর্ষে ছাত্রসহ অনেকেই ইন্দোনেশিয়ার বিভিন্ন শহরে রাস্তায় নেমে আসে।

পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপকারী বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে টিয়ার গ্যাস ও জলকামান ব্যবহার করা হয়। সংখ্যাগরিষ্ঠ-মুসলিম ইন্দোনেশিয়ার কিছু অংশে যৌনতা এবং সম্পর্কের ক্ষেত্রে এই ধরনের কঠোর আইনের নজির নেই।

এ বিষয়ে আচেহ প্রদেশ কঠোর ইসলামী আইন প্রয়োগ করে এবং জুয়া খেলা, মদ পান এবং বিপরীত লিঙ্গের সদস্যদের সঙ্গে মিলিত হওয়ার জন্য লোকেদের শাস্তি দিয়ে আসছে।

২০২১ সালে একটি ক্ষেত্রে, প্রতিবেশীরা যৌন সম্পর্কের জন্য দুজন পুরুষকে অভিযুক্ত করেছিল। এ কারণে তাদের প্রত্যেকে ৭৭ বার বেত্রাঘাত করেছে পুলিশ। একই দিনে একজন মহিলা এবং পুরুষকে একে অপরের কাছে যাওয়ার জন্য ২০ বার বেত্রাঘাত খেতে হয়েছে এবং মাতাল হওয়ার অপরাধে দুজন পুরুষকে ৪০ বার বেত্রাঘাত করা হয়েছিল।

(ঢাকাটাইমস/০৩ডিসেম্বর/ এসএটি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :