মস্কোয় ড্রোন হামলা: ইউক্রেনে হামলার তীব্রতা না বাড়াতে রাশিয়াকে অনুরোধ ইইউ’র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ৩০ মে ২০২৩, ২০:০৯

মস্কোতে মঙ্গলবারের ড্রোন হামলার পর এর জের ধরে ইউক্রেনের সঙ্গে তীব্র বিরোধে না জড়াতে রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইইউ। ব্লকের পররাষ্ট্র বিষয়ক মুখপাত্র পিটার স্ট্যানো এই আহ্বান জানান। তিনি দাবি করেছেন, তিনি ঘটনার সমস্ত বিবরণ জানেন না।

স্টানো ব্রাসেলসে একটি ব্রিফিংয়ের সময় বলেন, ‘আমরা মস্কো অঞ্চলের ওপর দিয়ে কিছু ড্রোন উড়ছে বলে দাবি করা প্রতিবেদনগুলি নোট করেছি। এটি আসলে আমাদের মন্তব্য করার জন্য নয়, আমরা উত্স সম্পর্কে বা এর বিশদ সম্পর্কে কিছুই জানি না।’

তিনি আরও বলেন, ‘একমাত্র জিনিস যা আমি স্মরণ করতে পারি এবং পুনরাবৃত্তি করতে পারি তা হল রাশিয়ার কাছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের জোরালো আহ্বান যাতে ইউক্রেনের বিরুদ্ধে তার অবৈধ আগ্রাসন এই অজুহাতে আরও না বাড়ায়।’

মঙ্গলবার সকালে মস্কোর মেয়র সের্গেই সোবিয়ানিন শহরে একাধিক ড্রোন থেকে আক্রমণ হওয়ার কথা ঘোষণার পর এই মন্তব্য এসেছে। ঘটনাটি রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় নিশ্চিত করেছে এবং এটি কিয়েভকে সন্ত্রাসী হামলা চালানোর জন্য অভিযুক্ত করেছে।

মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘কিয়েভ সরকার মস্কো শহরের লক্ষ্যবস্তুতে মনুষ্যবিহীন বিমান দিয়ে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে।’

রুশ কর্মকর্তাদের মতে, অভিযানে আটটি ড্রোন ব্যবহার করা হয়েছিল যার সবগুলোই ধ্বংস করা হয়েছে। তিনটি ইলেকট্রনিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার মাধ্যমে ড্রোনগুলো দমন করা হয়েছিল এবং তাদের লক্ষ্য থেকে বিচ্যুত হয়েছিল। বাকি পাঁচটিকে আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার মাধ্যমে ধ্বংস করা হয়েছে। বেশ কয়েকটি আবাসিক ভবনের সামান্য ক্ষতি হয়েছে এবং দুইজন বেসামরিক লোক সামান্য আহত হয়েছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেছেন, হামলাটির জন্য কিয়েভ দায়ী এবং দাবি করেছেন যে এটি বিশেষভাবে বেসামরিক লক্ষ্যবস্তুতে পরিচালিত হয়েছিল। এদিকে ক্রেমলিন দাবি করেছে, এই অভিযানটি কিয়েভের একটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ কেন্দ্রে সাম্প্রতিক রাশিয়ান হামলার সঠিক প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য ইউক্রেনের প্রচেষ্টা ছিল।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, ‘এটা স্পষ্ট যে আমরা সিদ্ধান্ত গ্রহণের কেন্দ্রগুলির মধ্যে একটি কেন্দ্রের ওপর আমাদের অত্যন্ত কার্যকর হামলার প্রতি কিয়েভ সরকারের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে কথা বলছি। এই হামলা রবিবারে চালানো হয়েছে।’

তিনি যুক্তি দিয়েছিলেন যে মঙ্গলবারের হামলা ইউক্রেনের লক্ষ্য অর্জন না হওয়া পর্যন্ত সামরিক অভিযান চালিয়ে যাওয়ার প্রয়োজনীয়তা ‘আবারও নিশ্চিত করেছে।’

(ঢাকাটাইমস/৩০মে/এসএটি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :