এগিয়ে থেকেও ড্র করে খাদের কিনারায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১২:১৫

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গতকালের ম্যাচটি নিশ্চই ভুলে যেতে চাইবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।দাপুটে শুরুর পর গোলকিপার আন্দ্রে ওনানার ভুলে গালাতাসারাইয়ের বিপক্ষে ৩-৩ গোলে ড্র করেছে তারা।যার ফলে পয়েন্ট হারিয়ে গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়ার শঙ্কায় প্রিমিয়ার লিগের জায়ান্ট ক্লাবটি।

বুধবার (২৯ নভেম্বর) রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে গালাতাসারাইয়ের বিপক্ষে ৩-৩ গোলে ড্র করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আলেহান্দ্রো গারনাচো ও ব্রুনো ফার্নান্দেজের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ইউনাইটেড। হাকিম জিয়েশ এক গোল শোধ করার পর স্কট ম্যাকটমিনে ফের ব্যবধান বাড়ান। ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে থাকার পরও গোলকিপার আন্দ্রে ওনানার ভুলে শেষ পর্যন্ত ৩-৩ গোলের হতাশা নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে ইংলিশ ক্লাবটিকে।

গালাতাসারাইয়ের মাঠের এই ড্র ম্যান ইউর চ্যম্পিয়নস লিগের ভাগ্য সুতায় ঝুলিয়ে দিয়েছে। গ্রুপ পর্বে আরও একটি ম্যাচ বাকি থাকলেও দলটির নকআউটে ওঠার নিয়ন্ত্রণ আর নিজেদের হাতে রইল না। ৫ ম্যাচের পর ইউনাইটেডের পয়েন্ট এখন ৪ অবস্থান গ্রুপের শেষে। আগেই গ্রুপসেরা নিশ্চিত করে পরের পর্বে ওঠা বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে পরের ম্যাচ যে ম্যাচে তারা যে জিতবে এমন কোনো নিশ্চয়তা নেই।

দুইবার এগিয়ে যাওয়ার পরও ইউনাইটেড জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে না পারার পেছনে গোলকিপার ওনানার ভুলের দায়ের সঙ্গে আছে ম্যানইউর খেলোয়াড়দের গোল মিসের মহড়া। গালাতাসারিয়ের মাঠে শুরুতেই ইউনাইটেড এগিয়ে যায় ২-০ ব্যবধানে। ১১তম মিনিটে প্রথম গোলটি আসে গারনাচোর মাধ্যমে। দারুণ এক আক্রমনে এই গোলে সহায়তা করা ব্রুনো ফার্নান্দেজ নিজে দারুণ এক গোল দেন ১৮তম মিনিটে।

২০ মিনিটের মধ্যে দুই গোলে এগিয়ে যাওয়া ইউনাইটেডকে অবশ্য খুব বেশি সময় স্বস্তিতে থাকতে দেয়নি গালাতাসারাই। ২৮ মিনিটে প্রায় পঁচিশ গজ দূর থেকে দারুণ বুদ্ধিমত্তার এক ফ্রি কিকে ইউনাইটেডের জালে বল জড়ান হাকিম জিয়েশ। ওনানা আরেকটু তৎপর থাকলে যা হয়তো রুখেও দিতে পারতেন।

তবে গত প্রিমিয়ার লিগে ছন্দে থাকা এই ক্যামেরুনিয়ান গোলকিপার আসল ভুলটা করে বসেন দ্বিতীয়ার্ধের ৬২তম মিনিটে। তার আগে ৫৫তম মিনিটে আরেকটি দারুণ কাউন্টার অ্যাটাকে ম্যানইউ স্কোরলাইন ৩-১ বানায়।

ঘণ্টার কাঁটা পার হওয়ার কিছুক্ষণ পর অনেকটা প্রথমার্ধের মতো জায়গাতেই ফ্রি কিক পায় গালাতাসারাই। এবারও জিয়েশ নেন প্রায় একই শট। বল নাগালেই ছিল ওনানার। কিন্তু বল নিয়ন্ত্রণে নিতে গিয়ে উল্টো নিজের জালেই পাঠিয়ে দেন তিনি।

ব্যবধান কমিয়ে আনার পর উজ্জীবিত গালাতাসারাই আক্রমণে ধার বাড়ায়। আর সেই ধারাতেই ৩-৩ গোলে সমতা আসে। ডান দিক থেকে জিয়েশের বাড়ানো বল দারুণ দক্ষতায় দ্রুত নাগালে নিয়েই ডান পায়ের জোরালো শটে বল জালে পাঠান আকতারকোগলু। এই গোলেও ওনানা অতি সহজেই নিজের কাছের পোস্টে আবার পরাস্ত হয়েছেন। এবারের পুরো চ্যাম্পিয়নস লিগ জুড়েই এরকমই ছিল গত মৌসুম সেরা এই গোলকিপারের পারফরম্যানস।

শেষ দিকে ইউনাইটেড অবশ্য বেশ কয়েকটি ভালো আক্রমণ করে। তবে আক্রমণগুলোকে গোলে পরিণত করতে পারেনি ইউনাইটেডের আক্রমণভাগের খেলোয়াড়রা। এর মধ্যে ৮৪তম মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিলেন ব্রুনো ফার্নান্দেজ। কিন্তু বল পোস্টে লেগে প্রতিহত হওয়ায় হতাশ হতে হয় তার দলকে।

এখন শেষ ম্যাচে ইউনাইটেডের জয় পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কামনা করতে হবে যেন বাকি দুই দল ড্র করে।

(ঢাকাটাইমস/৩০ নভেম্বর/এনবিডব্লিউ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

খেলাধুলা এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :