নেপাল ভ্রমণের দিনগুলো

তাইজুল ইসলাম
 | প্রকাশিত : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৭:১৫

এক মাস হিমালয়কন্যা নেপালে কাটালাম। একটি মাস যেন স্বপ্নের মধ্যে কেটেছিল। যেখানে সুযোগ পেয়েছিলাম বিভিন্ন দেশ থেকে আসা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংস্কৃতি বিনিময়ের।

উপলক্ষটা ছিল ৪ ডিসেম্বর কাঠমান্ডুতে হয়ে যাওয়া ইউনিভারসাল পিস ফেডারেশন (ইউপিএফ) কর্তৃক আয়োজিত ‘এশিয়া প্যাসিফিক সামিট-২০১৮’। ওই সামিটের আয়োজক হিসেবে কাজ করার জন্য বাংলাদেশ থেকে দুজন মনোনীত হয়েছিল। দুজনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের। এর মধ্যে একজন আমি। অপরজন হচ্ছেন আরিফুল ইসলাম। 

আয়োজক হিসেবে কাজ করতে গিয়ে পেয়েছিলাম ১২টি দেশের প্রায় ৬০ জন শিক্ষার্থীর একটি শক্তিশালী নেটওয়ার্ক। তাদের সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে শিখেছি কীভাবে তৎক্ষণাৎ চ্যালেঞ্জিং কাজের মোকাবেলা করতে হয়? কীভাবে নতুন একটি পরিবেশে নিজেকে সহজে খাপ খাওয়ানো যায়, কীভাবে নিজের মধ্যে নেতৃত্বের গুণগুলোর সহজে বিকাশ ঘটানো যায়?

আমি কাজ করেছিলাম ‘ইন্টারন্যাশনাল ডেলিগেটস অ্যাকোমোডেশন ও হসপিটালিটি’ ডিপার্টমেন্টে। নেপালের নতুন একটি সংস্কৃতিতে গিয়ে প্রায় ২৫০০ ইন্টারন্যাশনাল ডেলিগেটসের জন্য হোটেল ম্যানেজ করা এবং ট্রান্সপোর্টেশন ও হসপিটালিটি দল ম্যানেজ করা আমার জন্য অনেকটা চ্যালেঞ্জিং কাজ ছিল। কারণ, ইন্টারন্যাশনাল ডেলিগেটসদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে আমাদের অনেক সচেতন থাকতে হয়েছিল এবং স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হয়েছিল।

তাছাড়া ১২টি দেশের ৬০ জন শিক্ষার্থী ভিন্ন ধর্ম ও ভিন্ন সংস্কৃতি হতে গিয়ে একটি লক্ষ্য নিয়ে একসঙ্গে কাজ করার এবং সবাই সবার সঙ্গে সবার ধারণাগুলো বিনিময় করার একটি চমৎকার সুযোগ পেয়েছিলাম। যেখানে কাজ করতে গিয়ে নতুন অনেক কিছু শিখেছি এবং আমি ও নতুন অনেক ধারণা শেয়ার করেছি, যা আমাদের কাজকে সহজ করে দিয়েছে। শিখতে পেরেছি কীভাবে ভিন্ন সংস্কৃতির মানুষের সঙ্গে সহজে ভ্রাতৃত্ব গড়ে তোলা যায়। শিখতে পেরেছি মানুষ কাজের সুবিধার্থে অথবা কোনো লক্ষ্য পূর্ণ করার জন্য কীভাবে নিজের কমফোর্ট জোন থেকে বের হয়ে আসা যায় এবং কতটা পরিশ্রমী ও আত্মপ্রত্যয়ী হলে নিজের কাজ শেষ করে অন্যের কাজে সাহায্য করার জন্য এগিয়ে আসা যায়। 

এশিয়া প্যাসিফিক সামিট-২০১৮-এর আয়োজক দলের সঙ্গে কাজ করে আমি যে শিক্ষা ও অভিজ্ঞতা লাভ করেছি তা আমাকে অনেক দূর এগিয়ে যেতে সহায়তা করবে বলে আমি মনে করি।

(ঢাকাটাইমস/২৩ডিসেম্বর/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :