শেখ জারাহর ফিলিস্তিনিদের ‘ভাড়াটে’ উল্লেখ করে রায় ইসরায়েলি আদালতের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ০৩ আগস্ট ২০২১, ১০:০৬

পূর্ব জেরুসালেমের শেখ জারাহ থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ নিয়ে ইসরায়েলের সঙ্গে এগারোদিনের যুদ্ধ সংঘঠিত হয়েছে। এর অবস্থা থমকে ছিল ইসরায়েলি আদালতের রায়ের কারণে। এতদিন পর ইসরায়েলি আদালত যে রায় দিয়েছে তাতে পরিবেশ আরও উত্তপ্ত হবে।

শেখ জারাহ এলাকায় উচ্ছেদের সম্মুখীন হওয়া ফিলিস্তিনি বাসিন্দাদের নিয়ে এই অতি স্পর্শকাতর মামলায় ইসরায়েলের সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে আন্তর্জাতিক সমাজের নজর ছিল।

ইসরায়েলি সুপ্রিম কোর্ট দীর্ঘ এই আইনি লড়াইয়ের সমাপ্তি ঘটাতে একটি রুলিং দেবে বলে কথা ছিল। তা না করে আদালত উভয় পক্ষকে আপোষরফা করার আহ্বান জানিয়েছে। তারা প্রস্তাব দিয়েছে যে চারটি ফিলিস্তিনি পরিবার শেখ জারাহতে তাদের বাড়িতে থাকতে পারবে- যদি তারা এটা স্বীকার করে নেয় যে একটি ইসরায়েলি কোম্পানি ওই জমির মালিক ছিল।

আদালতের পরিকল্পনা অনুযায়ী ৭০টিরও বেশি ফিলিস্তিনি পরিবারের 'সংরক্ষিত ভাড়াটে'র মর্যাদা অক্ষুণ্ণ থাকবে, এবং তারা যদি ভাড়া দেয়া অব্যাহত রাখে- তাহলে তাদের উচ্ছেদ করা যাবে না। ফিলিস্তিনি পরিবারগুলো এ ধরনের কোন সমাধান আগেও প্রত্যাখ্যান করে।

সুপ্রিম কোর্ট শেখ জারাহর বাসিন্দা ফিলিস্তিনিদের একটি তালিকা সাতদিনের মধ্যে দিতে বলেছে- যার অর্থ চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত অন্তত সাতদিন পিছিয়ে দেয়া হলো।

ইসরায়েল অধিকৃত পূর্ব জেরুসালেমের একটি অঞ্চল হচ্ছে এই শেখ জারাহ। জেরুসালেম শহরের প্রাচীন অংশ এবং পবিত্র স্থানগুলোর কাছাকাছিই এই এলাকাটির অবস্থান। এই এলাকাটির জমির মালিক কে - এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিবাদ চলছে।

ঢাকাটাইমস/০৩আগস্ট/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :