প্রজনন মৌসুমের আগে ইলিশের বাজার চড়া

কাজী রফিকুল ইসলাম, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ৩১ আগস্ট ২০১৮, ২৩:০৭ | প্রকাশিত : ৩১ আগস্ট ২০১৮, ২৩:০০

ইলিশের প্রজনন মৌসুম সামনে রেখে অক্টোবরের শুরু থেকে ইলিশ ধরায় নিষেধাজ্ঞা রযেছে। প্রতি বছরের মতো এবারও প্রজনন মৌসুমের আগে বেড়েছে ইলিশের দাম।

এ সময়ে ক্রেতাদের মধ্যে ইলিশের চাহিদাও বেড়েছে। নিষেধাজ্ঞা শুরুর আগে দাম আরও বাড়ার আশঙ্কায় অনেকে বেশি পরিমাণে ইলিশ কিনে ফ্রিজে সংরক্ষণ করছেন।  ক্রেতার চাহিদার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে ইলিশের দাম।

শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে।  

এ ছাড়া কাঁচাবাজারে বেড়েছে সবজি ও ব্রয়লার মুরগির দাম। কোরবানির ঈদের পরে মাংসের বাজার আগের মতোই।  

ইলিশের বাজারে গত সপ্তাহের তুলনায় এখন দাম বেশ কিছুটা গরম। ৬০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ১৮০০-২০০০ টাকা হালি দরে। এক কেজি ওজনের ইলিশের হালি ৪ হাজার টাকা থেকে ৪৮০০ টাকা পর্যন্ত। এক কেজির বেশি ওজনের ইলিশের দাম বেড়েছে সবচেয়ে বেশি। এক হালি ইলিশ মাছ কিনতে গুনতে হচ্ছে ৮ হাজার টাকা পর্যন্ত।

মোহাম্মদপুর নতুন কাঁচাবাজারের মাছ বিক্রেতা বশিরের মতে ইলিশের দাম ঠিকই আছে। ঢাকাটাইমসকে তিনি বলেন, ‘দামটাই দেখলেন, মাছ দেখবেন না? এই মাছ এর চেয়ে কম দামে পাওয়া যায়।’

ইলিশের পাশাপাশি অন্যান্য মাছের দামও কিছুটা বেড়েছে। ছোট চিংড়ি বিক্রি হতে দেখা গেছে ৫০০-৬০০ টাকা কেজি দরে। মাঝারি ও বড় আকারের চিংড়ি বিক্রি আকার অনুপাতে ৮০০ থেকে দেড় হাজার টাকা পর্যন্ত।

এ ছাড়া রুই ৩৫০, বোয়াল ৫০০-৫৫০, তেলাপিয়া ২২০, নলা মাছ ৩২০-৩৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। কৈ মাছ ২০০ টাকা, শিং কেজি ৫০০-৬০০ টাকা।

বেড়েছে সবজি ও মুরগরি দাম

এক সপ্তাহের ব্যবধানে দামের দিক থেকে কিছু পরিবর্তন এসেছে সবজির বাজারে। বেড়েছে টমেটো, শিম, করল্লার দাম। ৮০-৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া টমেটো এখন বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা কেজি দরে। করল্লা ৬০ টাকায়, শিম ১২০ টাকা।

দেড় শর ঘর থেকে কিছুটা নেমে কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা কেজি। কিছুটা দাম কমেছে ছোট মিষ্টি কুমড়ার।

অপরিবর্তিত আছে বেগুন, শসা, বরবটি, লতি, পেঁপে, চিচিঙ্গা ও ঝিঙার দাম। ৪০-৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে এসব সবজি।

মুলা বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকা কেজি দরে। ফুলকপি ও বাঁধাকপি বিক্রি সাইজ অনুপাতে প্রতি পিছ ৪০-৫০ টাকা।

মুরগি বেড়েছে গরু স্থির

দাম বেড়েছে ব্রয়লার মুরগির। ঈদের আগে কমা দাম এখন বাড়তির পথে। প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকা কেজি, যা গত সপ্তাহের চেয়ে কেজিতে ৫-১০ টাকা বেশি।

দেশি মুরগি বিক্রি হচ্ছে ৪৫০ টাকা কেজি দরে। ২৫০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে পাকিস্তানি মুরগি।

গরুর মাংস ঢাকা দক্ষিণের বাজারে ৪৫০ থেকে ৪৬০ আর উত্তরের বাজারে ৪৮০-৫০০ টাকা কেজি।  খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে ৭৫০ টাকা এবং বকরির মাংস ৬৫০ টাকা কেজি।

(ঢাকাটাইমস/৩১আগস্ট/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :