জাবিতে আন্দোলনকারী ও ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি

জাবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৯:২৯

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগের বিচার বিভাগীয় তদন্তসহ তিন দফা দাবি এবং দুই শিক্ষার্থীকে ছাত্রলীগের মারধরের ঘটনায় কর্মসূচি পালন করেছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’- এর ব্যানারে রবিবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত আন্দোলনকারী শিক্ষকরা কর্মবিরতি, পদযাত্রা ও সমাবেশ কর্মসূচি পালন করেন। অন্যদিকে আন্দোলনকারী দুই শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনার প্রতিবাদে ‘ননফিকশন’ নাটক ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করেছেন শিক্ষার্থীরা।

বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কলা ও মানবিকী অনুষদের সামনে থেকে পদযাত্রার আয়োজন করেন আন্দোলনকারী শিক্ষকরা। এ সময় পদযাত্রা নিয়ে পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে গিয়ে সমাবেশ করেন তারা।

এদিকে দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ভবনের সামনে দুই আন্দোলনকারীকে ছাত্রলীগের মারধরের ঘটনার প্রতিবাদে ‘ননফিকশন’ নাটক প্রদর্শন করে জাহাঙ্গীরনগর থিয়েটার। নাটক প্রদর্শন শেষে বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষকদের সমাবেশে যুক্ত হয়।

সমাবেশে অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘মহাপরিকল্পনা একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সম্ভাবনার তৈরি করে। এটি শিক্ষার্থীদের আনন্দের বিষয়। কিন্তু আমরা এর বিপরীত দেখছি। বিশ্ববিদ্যালয় একটি মহাপরিকল্পনার মাধ্যমে তার পূর্ণ চাহিদা পূরণ করতে পারে। কিন্ত আমরা দেখছি উন্নয়নকে ঘিরে অশান্তি, সন্ত্রাস, চাদাবাজি। যেদিন প্রশাসন মহাপরিকল্পনার চিত্র প্রদর্শন করেছে সেখানে তারা কোনো সন্তোষজনক জবাব দিতে পারেনি। মহাপরিকল্পনার জন্য যে সমীক্ষাগুলো প্রয়োজন, তা কোথায় হয়েছে, কীভাবে হয়েছে তার যৌক্তিক উত্তর তারা দিতে পারেনি। মহাপরিকল্পনার কোনো ছকও তারা দেখাতে পারেনি। তারা বলছেন সময় নেই। কেন তাড়াতাড়ি করছেন তার একটা প্রমাণ পত্রিকার মাধ্যমে পেয়েছি। কাজ শুরু হওয়ার আগে টাকা ভাগাভগির খবর প্রকাশিত হয়েছে।’

আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক ও জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি আশিকুর রহমান বলেন, ‘আমাদের আন্দোলনের দুজন সংগঠককে সরকারদলীয় ছাত্র সংগঠন নির্যাতন করেছে। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছি। তাদের বিরুদ্ধে সঠিক ব্যবস্থা না নিলে আমরা আরও কঠিন আন্দোলনের দিকে যাব।’

ছাত্রলীগের প্রতিবাদ

এদিকে বেলা তিনটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্বর থেকে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জুয়েল রানার নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়।

মিছিল শেষে প্রতিবাদ সমাবেশে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জুয়েল রানা বলেন, ‘আমার সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক অভিষেক মন্ডলের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ দেয়া হয়েছে তা পূর্বপরিকল্পিত। গুটিকয়েক শিক্ষার্থীর চাপের মুখে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বাদী হয়ে একজন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে। যদি এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে, তাদের দুজনকে ডেকে তদন্ত করা হোক।’

(ঢাকাটাইমস/০৮সেপ্টেম্বর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :