দেশে রয়েছে ব্লু ইকোনমি নির্ভর পর্যটন বিকাশে অপার সম্ভাবনা: উপাচার্য ড. মশিউর

ঢাকাটাইমস ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৬:২৩

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান বলেছেন, ‘বাংলাদেশে ব্লু ইকোনমি নির্ভর অপার সম্ভাবনা রয়েছে। আমাদের সমুদ্র সম্পদের যদি সঠিক ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে পারি তাহলে পর্যটনের অনেক নতুন নতুন ক্ষেত্র তৈরি হবে। সমুদ্রসীমা বিজয়ের মধ্য দিয়ে আমাদের সেই সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু সেটিকে যদি আমরা যথাযথভাবে কাজে লাগাতে না পারি তাহলে অনেক সম্ভাবনা ম্লান হয়ে যাবে।’

গত ২৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ঢাকার আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড আয়োজিত ‘পর্যটন শিল্পে কর্মসংস্থানের সম্ভাবনা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন উপাচার্য ড. মশিউর রহমান।

দেশের প্রথিতযশা সমাজবিজ্ঞানী উপাচার্য ড. মশিউর রহমান বলেন, ‘আমাদের ছিটমহল সমস্যা সমাধান, পার্বত্য শান্তি চুক্তি, বিশেষ করে সমুদ্র বিজয়, উত্তর বাংলায় কিছুদিন আগেও মঙ্গা ছিল সেটি দূরীকরণ, আমাদের আত্মমর্যাদার পদ্মাসেতু- এসব পর্যটন শিল্পের জন্য স্থায়ী ভিত্তি হিসেবে কাজ করছে। একথা আমরা নির্দি¦ধায় বলতে পারি। এই জায়গায় আমরা আরো আগে পৌঁছাতে পারতাম। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করা হল। এই হত্যাকাণ্ড মধ্য দিয়ে আমাদের দেশটির সম্ভাবনা ধ্বংস করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু যদি বেঁচে থাকতেন এবং তার পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়ন হতো তাহলে ৮০ এর দশকেই আমরা এসব অর্জন করে ২০২৩ এ একটি ভিন্ন বাংলাদেশে থাকতাম। সুতরাং নেতৃত্বে এবং পথ চলতে যদি ভুল হয় তাহলে তার মাশুল দিতে হয়।’

উপাচার্য ড. মশিউর রহমান আরও বলেন, ‘আমরা আধুনিকতার কথা বলি, অগ্রসরতার কথা বলি, সেটি নিশ্চয়ই ঘটেছে। কিন্তু প্রতিনিয়ত আমরা প্রকৃতিকে যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করেছি, নষ্ট করেছি, ধ্বংস করেছি সেটির প্রতিদানও কিন্তু প্রকৃতি আমাদের বিভিন্ন সময় ফিরিয়ে দেয়। প্রকৃতিকে ধ্বংস করে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করি আবার প্রকৃতির মধ্যেই ফিরে যেতে চাই। ঘরের মধ্যে নীল পানির সুইমিং পুল তৈরি করি কিন্তু পুকুর, নদী, নালা, সমুদ্রকে ধ্বংস করি। আমরা পৃথিবীময় একটি বিভেদের সমাজ তৈরি করেছি।’

সৃজনশীল এবং উৎকর্ষতার জায়গায় চতুর্থশিল্প বিপ্লবের কারিগরদের তৈরি হওয়ার আহ্বান জানিয়ে উপাচার্য ড. মশিউর রহমান বলেন, ‘আমাদের দক্ষ নাগরিক তৈরির কোনো বিকল্প নাই। আগামীর বিশ্বকে নেতৃত্ব দিতে হলে যারা আমাদের শিক্ষার্থী এবং তরুণ প্রজন্ম রয়েছে তাদেরকেই দক্ষ হয়ে গড়ে উঠতে হবে। কারণ বিশ্বের অন্যান্য দেশের তরুণের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করেই টিকে থাকতে হবে।’ সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের হোটেল ম্যানেজমেন্ট এন্ড ট্যুরিজম বিভাগের শিক্ষক ড. আনোয়ার হোসেন। বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাবেদ আহমেদের সভাপতিত্বে সেমিনারে পর্যটন শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/৩০সেপ্টেম্বর/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

অর্থনীতি এর সর্বশেষ

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের ৩৮৫তম বোর্ডসভা অনুষ্ঠিত

চড়া সবজির বাজার, বেড়েছে পেঁয়াজ, রসুন ও আলুর দাম

ই-ক্যাব সদস্যদের জন্য ওস্তাদজীর কোর্সে শতভাগ ছাড়!

বিদেশি ক্রেতার শর্ত মানে নিশ্চিত নিষেধাজ্ঞা আসছে এমন কিছু নয়: বিজিএমইএ

মিনিস্টারের নির্বাচনি অফার, টিভি-ফ্রিজে ডিসকাউন্ট

পোশাক রপ্তানিতে চীনকে ছাড়িয়ে শীর্ষে বাংলাদেশ

শেরপুরে রূপালী ব্যাংকের এটিএম বুথ উদ্বোধন

কর্মসংস্থান ব্যাংকের সহকারী অফিসারদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধন

সোনালী ব্যাংকের পেমেন্ট গেটওয়ে সেবায় যুক্ত হলো প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক

মার্সেল ফ্রিজ কিনে লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পেলেন নোয়াখালীর আলাউদ্দিন

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :