নেত্রকোণায় শিশুটিকে বলাৎকারের পর মাথা ছিন্ন করা হয়

নেত্রকোণা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৪ জুলাই ২০১৯, ১৮:১৫

নেত্রকোণা ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত যুবকের ব্যাগে শিশুর ছিন্ন মাথা পাওয়ার রহস্য উন্মোচন করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, শিশুটিকে বলাৎকারের পর ওই যুবক তাকে গলা কেটে হত্যা করে।

বুধবার দুপুরে ময়মনসিংহ রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি আক্কাস উদ্দিন ভুইয়া নেত্রকোণা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে গুজব প্রতিরোধে মতবিনিময় সভায় এই তথ্য জানান।

এ সময় তিনি নিহত যুবকের ময়নাতদন্তের রিপোর্টের বরাত দিয়ে বলেন, ঘাতক যুবক রবিন মাদকাসক্ত ছিলেন। তিনি শিশুটিকে বলাৎকার করার পর তথ্য গোপন করতে শিশুটিকে গলা কেটেসহ তিন টুকরো করার পর ছিন্ন মস্তকটি অন্যত্র গুমের চেষ্টা করছিলেন।

পুলিশ জানায়, গত ১৮ জুলাই রবিন হাতে একটি ব্যাগ নিয়ে শহরের বারহাট্টা রোডের হরিজন পল্লীতে মদ খেতে যান। সেখানে এক ঘরে মদ না পেয়ে অন্যঘরে যাওয়ার সময় ব্যাগ থেকে রক্ত পড়তে দেখেন হরিজন পল্লীর লোকজন। তখন তাকে জিজ্ঞেস করলে তিনি সঠিক জবাব দিতে না পারায় ব্যাগ খুলে শিশুর মাথা দেখতে পান স্থানীয়রা।

এ সময় রবিন মাথাটিসহ দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। স্থানীয়রা তার পিছু ধাওয়া করে এবং নিউটাউন এলাকায় অনন্ত পুকুর পাড়ে তাকে ধরে পিটুনি দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

রবিন নেত্রকোণা শহরের কাটলি এলাকা ও সজিব একই এলাকার রিকশাচালক রইছ উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরীর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও নেত্রকোণা পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম খান,  জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ওবায়দুল্লাহ, জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামলেন্দু পালসহ অন্যরা।

সভায় রাজনীতিক, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, বিভিন্ন সামাজিক, পেশাজীবীও ধর্মীয় নেতারা অংশ নেন।

ঢাকাটাইমস/২৪জুলাই/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :