আমেরিকা যাওয়ার পথে সাগরে নিখোঁজ ১০ বাংলাদেশি

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৯ জুন ২০২১, ১৬:৩৪ | প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০২১, ১৬:২৭

কলম্বিয়ার কর্ডোবার পুয়ের্তো এস্কোনিডো উপকূলে নৌকাডুবির ঘটনায় চার অভিবাসী বাংলাদেশিকে উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় আরও ১০ বাংলাদেশি নিখোঁজ আছেন। এছাড়া একজন নেপালিকেও উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ হওয়া তরুণদের মধ্যে দুজন বড়লেখার রয়েছেন বলে জানিয়েছেন তাদের স্বজনরা। নিখোঁজ দুজন বড়লেখা উপজেলার পৌর এলাকার পাখিয়ালা গ্রামের সুহেদ আজাদ এবং একই উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের তারাদরম গ্রামের সদরুল হোসেন অভি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে নিখোঁজের ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছেন দুই তরুণের স্বজনরা। তাদের ধারণা নৌকাডুবির ঘটনায় আরো সিলেটি তরুণ থাকতে পারে।

তারা জানান, গত রবিবার নিখোঁজ দুই তরুণ একসঙ্গে আরো কয়েকজন মিলে কলম্বিয়া থেকে পানামা যাওয়ার জন্য রওয়ানা দেন। সমুদ্র পথে নৌকাডুবির ঘটনায় তারাসহ ১০ বাংলাদেশি নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজের পর থেকে দুই পরিবারের মধ্যে শোকাবহ পরিবেশ বিদ্যমান। তারা দুই তরুণের খবর নিতে সেখানকার বাংলাদেশি দূতাবাসকে অনুরোধ জানিয়েছেন।

একটি সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার অবৈধভাবে আমেরিকা যাওয়ার জন্য ১৪ বাংলাদেশিসহ ১৮ জন অভিবাসী একটি নৌকায় কলম্বিয়া থেকে পানামার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছিল। তারা সবাই নৌকায় কলম্বিয়ার নিকোলি পাড়ি দিয়ে পানামার উরাবা এন্টিওকুইনো অঞ্চলে অবৈধ মাইগ্রেশন রুটটি দিয়ে পানামার ভয়ঙ্কর দরিয়েন জঙ্গল হয়ে আমেরিকা পাড়ি জমাতে চেয়েছিল। কিন্তু পথিমধ্যে তাদের নৌকা ডুবে যায়।

এ ঘটনায় চারজন বাংলাদেশিকে উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে একদল জেলে ক্যারিবিয়ান সাগরের উরাবা উপসাগর থেকে তাদের উদ্ধার করেন। তবে বাকি ১০ বাংলাদেশির কোনো হদিস পাওয়া যায়নি। উদ্ধারকৃত চার বাংলাদেশির মধ্যে তিনজনের ছবি কলম্বিয়ার গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হলেও অভিবাসীদের কাছে পাসপোর্ট বা কোনো দলিল পাওয়া যায়নি। তাই প্রাথমিকভাবে তাদের পরিচয় জানানো যায়নি।

এর আগে কলম্বিয়ান গণমাধ্যম জানিয়েছে, নৌকাটিতে কমপক্ষে ১৮ জন অভিবাসী ছিল এবং অন্যরা নেপালি বলে ধারণা করা হচ্ছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, উদ্ধার বাংলাদেশিদের অবস্থা সংকটাপন্ন। কারণ তারা হিট স্ট্রোক, হাইপোথার্মিয়া এবং অপুষ্টিতে ভুগছেন। বর্তমানে তারা সান জেরেনিমো দে মন্টেরিয়া হাসপাতালে আছেন। এর মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের কলম্বিয়ান অভিবাসন কর্তৃপক্ষের হেফাজতে রাখা হয়েছে। পুয়ের্তো এস্কোনিডোর মেয়র বলেছেন, ‘যেখানে তাদের পাওয়া গেছে সেখানে তারা কয়েক ঘণ্টা অবরুদ্ধ ছিল। তাদের সবার ডিহাইড্রেশনের লক্ষণ আছে এবং তাদের মধ্যে একজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় আছেন।’

পুয়ের্তো এস্কোনিডোর পৌরসভার প্রতিনিধি আর্সিসিও ম্যানুয়েল ভার্গাস বলেছেন, ‘একজন দোভাষীর মাধ্যমে নিশ্চিত করা হয়েছিল- এই অভিবাসীরা এশীয় বংশোদ্ভূত। আরও স্পষ্টভাবে বললে বাংলাদেশ- যারা নিকোলি থেকে পানামার পথে রওনা হয়েছিলেন।’

(ঢাকাটাইমস/২৯জুন/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

প্রবাসের খবর এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :