চিকিৎসার অভাবে মারা যান চাঁদনী! কেন এমন দুর্দশায় পড়েন নায়িকা?

বিনোদন প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৯ জুলাই ২০২৪, ০৯:৩০ | প্রকাশিত : ০৯ জুলাই ২০২৪, ০৯:২৮

বাংলা চলচ্চিত্রের একজন পরিচিত মুখ ছিলেন চিত্রনায়িকা সিলভী আজমী চাঁদনী। ২০২১ সালের ৬ জুলাই সকালে তিনি মারা যান বগুড়ার একটি সরকারি হাসপাতালে। তিনি থাইরয়েড রোগে ভুগছিলেন। ১০ দিন ঢাকার হেলথকেয়ার হাসপাতালেও ভর্তি ছিলেন।

কিন্তু অভিজাত এই হাসপাতালের ব্যয়ভার বহন করতে পারছিলেন না চাঁদনী। এরপর তিনি গ্রামের বাড়ি বগুড়ায় গিয়ে একটি সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। চার দিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই হাসপাতালেই তার মৃত্যু হয়।

চাঁদনীর মামা মাসুম সে সময় জানান, টাকার অভাবে এই নায়িকাকে তারা ঢাকায় চিকিৎসা করাতে পারেননি। এ জন্য বগুড়ায় নিয়ে যেতে হয়। সেখানে নেওয়ার চার দিনের মাথায় চাঁদনী মারা যান।

কিন্তু কেন এমন দুর্দশায় পড়েছিলেন চিত্রনায়িকা চাঁদনী? কেন অর্থাভাবে, ভালো চিকিৎসার অভাবে অকালেই তাকে প্রাণ দিতে হয়েছিল?

জানা যায়, ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে অসৎ সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছিলেন ঢালিউডের এই চিত্রনায়িকা। ২০১১ সালে কক্সবাজারের একটি হোটেল থেকে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হয়েছিলেন তিনি। সে সময় তার সঙ্গে চলচ্চিত্র পরিচালক জিএম সারওয়ারসহ আরও ছয়জন গ্রেপ্তার হন। দীর্ঘদিন তারা জেলে ছিলেন।

জেল থেকে ছাড়া পেয়ে ২০১২ সালে অভিনয়ে ফেরেন চাঁদনী। ২০১৮ সাল পর্যন্ত বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করলেও প্রতিটিই ছিল ফ্লপ। যার কারণে কোনো সঞ্চয় ছিল না চাঁদনীর। এছাড়া তার পূর্বে অর্জিত প্রায় সব অর্থই ২০১১ সালের পর থেকে মাদক মামলা থেকে ছাড়া পাওয়ার পেছনে ব্যয় হয়ে যায়।

ফলে বিপদের সময়ে দারুণ অর্থাভাবে পড়ে যান চাঁদনী। ২০১৯ সালে তিনি থায়রয়েড রোগে আক্রান্ত হন।

শোনা যায়, নিজেকে ফিট রাখতে অতিরিক্ত ডায়েট করতে গিয়ে শরীরে আয়োডিনের অভাব দেখা দেয় চাঁদনীর। ফলে তিনি থাইরয়েডে আক্রান্ত হন। কিন্তু টাকার অভাবে উন্নত চিকিৎসা নিতে পারেননি। চিকিৎসার অভাবেই চলে যান না ফেরার দেশে।

২০০৭ সালে বিনোদন বিচিত্রা ফটোসুন্দরী প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ হয়ে মিডিয়ায় যাত্রা শুরু করেন চাঁদনী। ২০০৯ সালে ‘বলো না কবুল’ সিনেমার মাধ্যমে অভিষেক করেন সিনেমায়। শাহাদাৎ হোসেন লিটন পরিচালিত ওই সিনেমায় তিনি শাকিব খানের ছোট বোনের চরিত্রে ছিলেন।

এরপর ২০১০ সালে ‘যেমন জামাই তেমন বউ’ চলচ্চিত্রে ইমনের বিপরীতে নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেন চাঁদনী। মূলত এ সিনেমা থেকেই তিনি চাঁদনী নামে পরিচিত হন। ২০১২ সালে মুক্তি পায় তার অভিনীত ‘বাংলা ভাই’ সিনেমাটি। যেখানে তিনি চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিপরীতে অভিনয় করেন।

পরবর্তীতে ‘কমিশনার’, ‘এক জবানের জমিদার হেরে গেলেন এইবার’, ‘ভালোবাসার চ্যালেঞ্জ’সহ বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করেন চাঁদনী। তার অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা নিরবের বিপরীতে ‘রাঙামন’। যেটি মুক্তি পায় ২০১৮ সালে।

(ঢাকাটাইমস/০৯জুলাই/এজে)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :