কুবিতে মানবিক আয়োজন 'স্টল ফর ফারুক'

মাহফুজ কিশোর
 | প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ২১:০৮

হঠাৎ দেখায় কারও মনে করতে পারে, বুঝি কোনো মেলা বসেছে এখানে। নানা শিল্পকর্ম সাজানো স্টলে স্টলে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা আসছেন, ঘুরে দেখছেন। কেউ কেউ কিনে নিচ্ছেন কোনো কোনো শিল্পকর্ম।

হ্যাঁ, মেলাই। প্রিয় বন্ধু-সহপাঠী, স্নেহের ছাত্রকে সবুজ ক্যাম্পাসে ফিরিয়ে আনার এক মানবিক প্রাণের মেলা। নাম ‘স্টল ফর ফারুক’, যার আবেদন- ‘আমরা দাঁড়িয়েছি, আপনিও হাত বাড়ান’।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ক্যানসারাক্রান্ত শিক্ষার্থী মো. ফারুক আহমেদের চিকিৎসার অর্থ সংগ্রহের জন্য এই ব্যতিক্রমী আয়োজন করেন তার শুভাকাক্সক্ষীরা। তাদের অন্যতম শিল্পী নওশাদ আহমেদ।

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সার্বিক সহযোগিতা ও আয়োজনে 'স্টল ফর ফারুক' থেকে প্রাপ্ত আয় মরণব্যাধির সঙ্গে লড়তে থাকা ফারুকের চিকিৎসার জন্য দেওয়া হবে। ব্যতিক্রমী ও মানবিক এই আয়োজন এরই মাঝে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে সাড়া ফেলেছে।
‘আমরা দাঁড়িয়েছি, আপনিও হাত বাড়ান’- এই স্লোগান নিয়ে গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে দিনব্যাপী স্টলটি পরিচালনা করেন বিভিন্ন বিভাগের স্বেচ্ছাসেবী শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের অষ্টম ব্যাচের বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী ও শিল্পী নওশাদ আহমেদের বানানো শিল্পকর্ম দিয়ে সাজানো হয় স্টলগুলো। হৈমন্তী, ফাল্গুনী, সমাপ্তি- নানা বাহারি নামে বেশ কটি বুথে বিক্রির জন্য প্রদর্শন করা হয় নওশাদ আহমেদের দুই শতাধিক শিল্পকর্ম।
শিল্পকর্মগুলোর মধ্যে ছিল কাঠ ও বাঁশ দিয়ে বানানো বিভিন্ন অলংকার-গহনাসামগ্রী, কলম, কলমদানি, গাছের পাতায় খোদাই করা দেয়ালচিত্র, ঘরের সৌন্দর্য্যবর্ধক বিভিন্ন শো-পিস। এসব শিল্পকর্মের বিনিময়ে ক্রেতাদের মনমতো দাম ফারুকের চিকিৎসার জন্য অনুদান হিসেবে রাখেন আয়োজকরা।
মানবিক উদ্দেশ্যে ফারুকের পাশে দাঁড়াতে এই চেষ্টা বলে জানান আয়োজকদের প্রধান শিল্পী নওশাদ আহমেদ। ‘আমি যখন ফারুকের ব্যাধি সম্পর্কে জানতে পারি এবং পরে যখন দেখি যে মানুষের কাছে বৃথা হাত বাড়াতে হচ্ছে তার চিকিৎসার অর্থের জন্য, বিষয়টা আমার কাছে কেমন লাগত। তার চেয়ে আমি নিজের কাজের মাধ্যমে কিছু করতে চেয়েছি ফারুকের জন্য। এ কাজে আমাকে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা নানাভাবে সহযোগিতা করেছেন। তাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ।'


সোমবার দিনব্যাপী এই আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহস্রাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী স্টলে ভিড় জমান। স্টলের স্বেচ্ছাসেবী ও ক্রেতা তাইয়্যেবুন মিমি বলেন, 'ফারুক আমাদের মাঝে ফিরে আসবে- এই প্রত্যাশায় আমরা এই স্টলে সহযোগিতা করছি, বিভিন্ন সামগ্রী কিনছি। অর্থের অভাবে আর কোনো মেধাবী প্রাণ হারাতে চাই না আমরা।'

স্টলে আসা নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. আজমাইন মুহতাসিম মীর বলেন, 'ব্যতিক্রমী ও অনাড়ম্বর এই আয়োজন খুবই প্রশংসনীয়। সবার সহযোগিতায় ফারুক সুস্থ হয়ে আবার ক্যাম্পাসে ফিরবে বলে আশা করি।'

২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের নৃবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মো. ফারুক আহমেদ দুরারোগ্য 'ক্রনিক মেলোয়েড লিউকোমিয়া' নামের ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত। তার 'বোনম্যারো ট্রান্সপ্ল্যান্ট' ও অন্যান্য চিকিৎসা বাবদ প্রায় ৬০ লাখ টাকা প্রয়োজন। ইতিমধ্যে তার বন্ধু, সহপাঠী, শিক্ষক ও শুভাকাক্সক্ষীদের সহযোগিতায় অর্ধেকের মতো টাকার ব্যবস্থা হয়েছে। বাকি টাকার ব্যবস্থা হলেই তার চিকিৎসা সম্পন্ন করা সম্ভব হবে বলে জানান চিকিৎসকরা।

ফারুকের সহপাঠী ও বন্ধুরা জানান, সদাহাস্য ফারুক আবার ফিরতে চান তাদের লাল-সবুজঘেরা কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে। তাকে ফেরাতে আপনার আর্থিক সাহায্য একান্ত প্রয়োজন।

ফারুকের চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহযোগিতা পাঠানোর ঠিকানা- হিসাব নাম:
ফারুক চিকিৎসা অর্থ তহবিল, হিসাব নম্বর: ০১০০১৪০৯১১৪১৫ (জনতা ব্যাংক, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা)।
এ ছাড়া বিকাশ: ০১৭৫১৬৭৮৫৭৯ (পার্সোনাল) ও রকেট: ০১৯৪৪৯০৯৯৬৮০ নম্বরে সাহায্যের অর্থ পাঠানো যাবে।

(ঢাকাটাইমস/২১জানুয়ারি/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত