প্রবীর সিকদারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চায় ফরিদপুর আ.লীগ

ফরিদপুর প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ মে ২০১৯, ১৬:০৬

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ দলটির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে নিয়ে কটূক্তি ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অভিযোগে বিতর্কিত সাংবাদিক প্রবীর সিকদারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে।

শনিবার দুপুরে ফরিদপুর শহরের থানা রোডে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এই দাবি জানায় জেলা আওয়ামী লীগ। সংবাদ সম্মেলনে প্রবীর সিকদারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা করা হয়, একটি বিশেষ মিশন নিয়ে সাংবাদিক প্রবীর শিকদার ফরিদপুরের হাজার বছরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের চরিত্র হননের অপচেষ্টায় লিপ্ত আছেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির ভাবমূর্তি বিনষ্টের গভীর চক্রান্ত করছেন। সেজন্য তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী সুবল চন্দ্র সাহা বলেন, ‘জাতীয় নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন এমপি ও মন্ত্রী সম্পর্কে অসত্য, অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ সংবাদ ও স্ট্যাটাস দিয়ে জনমনে নেতিবাচক ধ্যানধারনা সৃষ্টি করছেন প্রবীর সিকদার।’ বিএনপি-জামায়াত তথা যুদ্ধপরাধীদের মদদে ও তাদের অর্থে প্রবীর এই কাজ করছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

সুবল সাহা বলেন, ‘তার (প্রবীর) কারণে আবহমানকাল ধরে চলে আসা হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ ও খৃষ্টানদের একসঙ্গে চলাফেরার জায়গাটিতে সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছে।’

ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, ‘প্রবীর শিকদারের বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে ৫৭ ধারায় মামলা হয়েছে। আমি ওই মামলার একজন সাক্ষী। তিনি যদি তার এসব কর্মকা- থেকে বিরত হন ভালো। নয়তো পার্টির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার দায়ে সংক্ষুব্ধ যে কেউ তার বিরুদ্ধে মামলা করতে পারেন।’

সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের নেতারা বলেন, ‘প্রবীরের ওই বিতর্কিত কর্মকাণ্ড শুধু আমাদেরই নয় গোটা সাংবাদিক সমাজকেও হেয় করছে।’ এসময় দলটির নেতাকর্মীরা সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লোকমান হোসেন মৃধা, কোতয়ালি থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর উপজেলার চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক মোল্যা, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি নাজমুল ইসলাম খন্দকার লেভী, জেলা যুবলীগের সভাপতি এ এইচ এম ফোয়াদ, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি আক্কাস হোসেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ফাহাদ বিন ওয়াজেদ ফাইন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নিশাদ মাহমুদ শামীমসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের যৌথ সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক আজকের এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় বলে জানানো হয়।

জেলা যুবলীগ, শ্রমিক লীগ, ছাত্রলীগ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এ ব্যাপারে পৃথক সভা করে প্রবীর শিকদারের কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলন জানানো হয়।

ঢাকাটাইমস/১৮মে/প্রতিনিধি/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :