ডাকসু নেতাদের হস্তক্ষেপে দাম কমাল ‘কফি হাট’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৫৩

ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা ছাড়াও প্রতিদিন অসংখ্য মানুষের আনাগোনা থাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায়। এসব মানুষের জন্য মুখরোচক খাবারের যোগান দিতে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন পয়েন্টে গড়ে ওঠেছে খাবারের দোকান।

তবে এসব খাবারের দাম এবং মান নিয়ে অনেক দিন ধরেই শিক্ষার্থীসহ ক্যাম্পাসে আগতদের। বিশেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় সংসদ (ডাকসু) ভবনের পাশে ডিউ কফি হাটের বিরুদ্ধে খাবারের দাম বেশি নেয়ার অভিযোগ আছে। ডাকসুর নির্বাচিত প্রতিনিধিরা এই দোকান মালিকদের সঙ্গে বৈঠক করে দাম সহনীয় পর্যায়ের রাখার অনুরোধ করেন।

অবশেষে মঙ্গলবার দাম কমানোর সিদ্ধান্ত হয়। বুধবার থেকে দোকানে টানিয়ে দেয়া হবে খাবারের মূল্য তালিকা।

ঢাকাটাইমসকে একথা জানিয়েছেন ডাকসুর সদস্য মুহা. মাহমুদুল হাসান। এ নিয়ে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্টও করেছেন।

ডাকসুর এই সদস্য বলেন, ‘কয়েকদিন আগে পোস্ট দিয়েছিলাম ডিউ কফি হাটের দাম কমানোর জন্য। আজ ফাইনাললি ডিসিশন হলো। দোকান মালিকের সঙ্গে ডাকসুর নেতারা বসে দাম নির্ধারণ করেছি।’

প্রত্যেক খাবারে ১৫/২০ টাকা কমানো হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বুধবার থেকে নতুন দাম টাঙ্গানো হবে। মঙ্গলবার থেকেই আপনারা প্রতিটি খাবারে ১৫/২০ টাকা কম দেবেন। তবে খাবারের মান খারাপ হলে আমাদের জানাবেন।’ 

ডাকসুর সদস্য রাকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য বলেন, ‘মালিক পক্ষের সব বিষয় বিবেচনা করে আপাতত লাঞ্চ মেনুতে প্রতিটি খাবারে ১৫ টাকা করে কমিয়েছি। ম্যাক্সিকান এবং ইন্ডিয়ান খাবার মেনুতে ১০ টাকা করে কমানো হয়েছে। আগের ১০ টাকার চা এখন আট টাকা করা হয়েছে। দই ফুসকা ৮০ টাকার পরিবর্তে ৬০ টাকা করা হয়েছে। কোল্ড কফি ৬৫ টাকার পরিবর্তে ৫০ টাকা করা হয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য খাবারেও দাম কমানো হয়েছে।’

খাবারের মান খারাপ হলে এবং পরিমাণে কম দেয়া হলে শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে সেই খাবার বিক্রি বন্ধ করে দেয়া হবে বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন ডাকসু নেতারা।

এসময় মাহমুদুল হাসান ছাড়াও ডাকসুর সদস্য রফিকুল ইসলাম সবুজ, তানভীর হাসান সৈকত ও রাইসা নাসের উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/২৩এপ্রিল/বিইউ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :