যৌতুকের জন্য গৃহবধূর আত্মহত্যা

ব্যুরো প্রধান, রাজশাহী
 | প্রকাশিত : ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ২০:৩৩

স্বামীর দাবি অনুযায়ী যৌতুক এনে না দিতে পেরে এক কিশোরী বধূ মুক্তি খাতুন আত্মহত্যা করেছে বলে জানায় পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার রাতে কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেন তিনি। পরে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠায়।

ভালোবেসে বাড়ি থেকে পালিয়ে বিয়ে করেছিল কিশোরী মুক্তি খাতুন। তখন তার বয়স ১৫। তিন বছর এই সংসার করার পর মুক্তি খাতুন ‘আত্মহত্যা’ করেছেন।
মুক্তি খাতুন রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌরসভার সাদীপুর মহল্লার আবদুর রহিমের মেয়ে। তিনি উপজেলার কুলিবাড়ী গ্রামের সোহেল রানার স্ত্রী। বিয়ের পর মুক্তি শ্বশুর বাড়িতেই থাকতেন।

নিহতের বাবার বরাত দিয়ে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান বলেন, পালিয়ে বিয়ে করায় পরিবারের সঙ্গে মুক্তির যোগাযোগ ছিল না। তবে স্বামী সোহেল রানা তাকে বাবার বাড়ি থেকে যৌতক এনে দেয়ার জন্য চাপ দিতেন। কিন্তু মুক্তি তার বাবার বাড়ি যেতে পারেননি। এ নিয়ে সংসারে কলহ লেগেই থাকত। স্বামী নির্যাতন করতেন। সহ্য করতে না পেরে মুক্তি আত্মহত্যা করেন।

ওসি  আরও জানান, ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। এ নিয়ে মুক্তির বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি আত্মহত্যার প্ররোচণার মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য তারা চেষ্টা করছেন বলেও জানান তিনি।

(ঢাকাটাইমস/২৬এপ্রিল/টিএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :