মুুুঠোফোনে পরিচয়, দেখা করতে এসে প্রাণ গেল যুবকের

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ নভেম্বর ২০১৯, ২০:২৯

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে মুঠোফোনে পরিচয়ের পর দেখা করতে এসে প্রাণ হারালেন এক যুবক। নিহত যুবকের নাম জামাল মিয়া। তিনি উপজেলার শ্রীনগর ইউনিয়নের বাউসমারা গ্রামের মৃত গিয়াস উদ্দিনের ছেলে।

রবিবার বিকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের শম্ভুপুর গ্রামের আলুকান্দার লেবু  বাগান থেকে পুরুষাঙ্গ কাটা লাশটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহতের স্ত্রী বিলকিছ বেগম বলেন, শনিবার সন্ধ্যায় তার স্বামীর মোবাইলে একটি নাম্বার থেকে কল আসে। তারপর সে আমাকে গানের অনুষ্ঠান দেখতে যাওয়ার কথা বলে ঘর থেকে বের হয়। সে নাকি অনুষ্ঠান দেখে ঘরে চলে আসবে। কিন্তু অনেক রাত হয়ে যায় ঘরে ফিরেনি। তার মোবাইলে কল দিলে নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়। রবিবার বিকালে জামালের বন্ধু ফরহাদ খবর দেয় যে, কে জানি তাকে মেরে জঙ্গলে ফেলে গেছে। এ খবর শুনে ছুটে এসে তাকে শনাক্ত করেন বলে তিনি জানান।

নিহতের বন্ধু ফরহাদ জানান, দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী জামাল মিয়ার সংসারে এক মেয়ে ও দুই ছেলে রয়েছে। ভৈরব পৌর শহরের কমলপুর গাছতলাঘাট এলাকার এক নারীর সাথে মুঠোফোনে তার পরিচয় হয়। প্রায়ই তারা ফোনে কথা বলত। তিনি একজন প্রবাসীর স্ত্রী বলে জানতো জামাল। গত কয়েক দিন ধরে ফোনে জামালকে দেখা করতে তাগিদ দিচ্ছিল ওই নারী। ফলে শনিবার রাতে ফোনে তার ডাকে সাড়া দিয়ে নিহত জামাল শহরে নারীর সাথে সাক্ষাৎ করতে ভৈরবে ছুটে আসে। তারপর থেকে সে নিখোঁজ ছিলেন। পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিহতের ছবি দেখে শনাক্ত করি।

ভৈরব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বাহালুল খান জানান, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে থানা নিয়ে আসা হয়। নিহতের পুরুষাঙ্গ কর্তনসহ শরীরে বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তবে এ হত্যাকাণ্ডটি রহস্যজনক। তাই তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করা হবে।  এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বিলকিছ বেগম একটি হত্যা মামলা করেছেন তিনি জানান।

(ঢাকাটাইমস/১১নভেম্বর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :