শেরপুরে বেদখল সরকারি জমিতে স্থাপনা তৈরির অভিযোগ

শেরপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:২৮

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে সরকারি খাসজমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। রবিবার দিবাগত গভীর রাতে সিমেন্টের খুঁটি ব্যবহার করে টিনশেড ঘর তোলা হয়েছে।

উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের বাকাকুড়া এলাকার মুখলেসুর রহমান নামের এক ব্যক্তি সরকারি ১০ শতাংশ জমি দখল করে এসব ঘর তোলেন জানান স্থানীয় লোকজন। নির্মাণ করা হয়েছে রান্নাঘর এবং শৌচাগারও। মুখলেসুর ওই গ্রামের মৃত মুনসুর আলীর ছেলে।

আজ মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে গেলে স্থানীয় আব্দুর রহমান, আশরাফ আলী, হাসমত, করিম শেখ ও  সোহেল অভিযোগ করে বলেন, বাকাকুঁড়া-গুরুচরণ দুধনই সড়কের সেতুর পাশে ওই ১০ শতাংশ খাসজমিতে ১২ ফুট চওড়া ও ৩০ ফুট লম্বা জায়গা জুড়ে সিমেন্টের খুঁটি গেড়ে টিনের ছাউনি দিয়ে একটি ঘর, রান্নাঘর ও শৌচাগার নির্মাণ করা হয়েছে। বালু দিয়ে ভরাট করা হচ্ছে জমিটি।

জায়গাটি এক নম্বর সরকারি খাস খতিয়ানভুক্ত উল্লেখ করে কাংশা ও ধানশাইল ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সুজন কুমার সোম বলেন, গত রবিবার বিকেলে ওই জায়গায় ঘর নির্মাণের সময় বাধা দেয়া হয়। তখন কাজ বন্ধ রাখে দখলদাররা। পরে রাতের আঁধারে মুখলেসুর রহমান নামের এক ব্যক্তি ওই জমিতে টিনশেড ঘর তৈরি করে।

দখলের অভিযোগ অস্বীকার করে মুখলেসুর রহমান দাবি করেন, জমিটি তিনি নাজমা বেগম নামের এক মহিলার কাছ থেকে কিনেছেন।

কিন্তু ভুমি অফিস বলছে জায়গাটি খাসজমি। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাশেদুল হাসান জানান, জায়গাটি উদ্ধারের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছেন তারা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :