স্ত্রীকে নওয়াজের পাল্টা নোটিশ

বিনোদন ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ২৭ জুন ২০২০, ১২:৪৩

লকডাউনে বর্তমানে উত্তরপ্রদেশে গ্রামের বাড়িতে রয়েছেন বলিউড অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। সেখানে চাষের কাজে ব্যস্ত তিনি। ইনস্টাগ্রামে সেই ভিডিও শেয়ারও করেছেন অভিনেতা। সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত সেখানেই ব্যস্ত থাকেন। তারই মধ্যে একটু দেরিতে হলেও স্ত্রী আলিয়া সিদ্দিকির পাঠানো তালাকের নোটিশের বিপরীতে এবার তাকে উল্টো নোটিশ পাঠালেন নওয়াজ। নানা অভিযোগ এনে গত ১৯ মে এই নোটিশ পাঠিয়েছিলেন আলিয়া। যিনি বিয়ের আগে অঞ্জলি কিশোরী পান্ডে নামে পরিচিত ছিলেন।

নওয়াজের পক্ষে নোটিশটি পাঠিয়েছেন তার আইনজীবি আদনান শেখ। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘আমার মক্কেল তার সন্তানদের পড়াশোনা ও যাবতীয় খরচ প্রতি মাসে পাঠান। তার প্রমাণও রয়েছে। ইএমআইও দেন। সেই কাগজও রয়েছে। আলিয়া ইচ্ছা করে নওয়াজের নামে অপবাদ দিচ্ছেন। সর্বসমক্ষে তাকে ছোট করছেন। আলিয়াকে লিখিত দিতে হবে যে, এরপর তিনি নওয়াজের বিরুদ্ধে আর কোনো মানহানিকর মন্তব্য করবেন না। এমনকী যেসব মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন, সেগুলো প্রত্যাহার করে নেবেন। নইলে নওয়াজের পক্ষ থেকে আলিয়ার বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এদিকে মাস খানেক আগে পাঠানো নোটিশে আলিয়া অভিযোগ করেছিলেন, নওয়াজ তার সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। তাকে অকথ্য ভাষায় অপমান করেছেন। নানা ভাবে তার মানহানির চেষ্টা করেছেন। ১৯ মে বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিশ পাঠানোর ১৫ দিন পরও নওয়াজের তরফ থেকে কোনো রকম উত্তর আসেনি। এমনকী নওয়াজ তাকে টাকা পাঠানো বন্ধ করে দেন। যার ফলে বাচ্চাদের স্কুল ফিসও দিতে পারেননি। তিনি নানা ভাবে নওয়াজের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পারেননি। একটু দেরিতে হলেও সে সব অভিযোগের জবাব উত্তর দিলেন নওয়াজ।

নওয়াজউদ্দিন ও আলিয়ার দীর্ঘ ১১ বছরের দাম্পত্য। তবে সম্পর্কটা আরও দীর্ঘ, ১৭ বছরেরও বেশি। গত মাসে হঠাৎই খবর আসে, চিড় ধরেছে সে সম্পর্কে। সে সময় একটি সংবাদ সংস্থাকে আলিয়া জানিয়েছিলেন, ‘বিয়ের এক বছর পর অর্থাৎ, ২০১০ সাল থেকেই তার আর নওয়াজের মধ্যে সমস্যা শুরু হয়। এতদিন তিনি সব সামলে নিচ্ছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি সবকিছু হাতের বাইরে চলে যায়। যার কারণে বাধ্য হয়ে তিনি নওয়াজকে ডিভোর্সের নোটিশ পাঠান। পাশাপাশি নিজের পুরনো নাম ফিরে পাওয়ার আইনি প্রক্রিয়াও শুরু করেন।

আলিয়াই অবশ্য নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির প্রথম স্ত্রী নন। অভিনেতার প্রথম স্ত্রীর নাম ছিল শাহিবা। মায়ের ইচ্ছাতে এই নারীকে বিয়ে করেছিলেন ‘গ্যাংস অফ ওয়াসিপুর’-এর ‘ফয়জল খান’। সেই সংসার টিকেছিল মাত্র ছয় মাস। ডিভোর্স হয়ে যায় নওয়াজ ও শাহিবার। এরপর ২০০৯ সালে অভিনেতা অঞ্জলি কিশোরী পান্ডে অর্থাৎ আলিয়াকে বিয়ে করেন। এই সংসারে তার দুই সন্তান। কিন্তু আলিযার সঙ্গেও শেষের পথে নওয়াজের দাম্পত্য জীবন।

ঢাকাটাইমস/২৭জুন/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :