অবৈধ রিকশা বন্ধে ডিএনসিসির উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১০ জুলাই ২০১৯, ১৮:০১ | প্রকাশিত : ১০ জুলাই ২০১৯, ১৭:৪৩

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকায় যেন অবৈধ রিকশা চলাচল করতে না পারে সে ব্যাপারে উদ্যোগ নিচ্ছে সিটি করপোরেশন। অবৈধ রিকশায় কিউআর কোড বসানো, এলাকাভিত্তিক রিকশাচালকদের পোশাক প্রদান এবং চালকদের একটি তালিকা করার কথা ভাবছে ডিএনসিসি।

বুধবার দুপুরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান কার্যালয়ে রিকশা মালিক শ্রমিকদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন মেয়র আতিকুল ইসলাম। পরে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গেও কথা বলেন।

বৈঠকে সংগঠনের নেতারা অবৈধ রিকশা বন্ধ এবং মূল সড়কে রিকশা চলাচলের বিষয়ে বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন। এর জবাবে মেয়র বলেন, ‘ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের যে বৈধ রিকশা আছে আমরা প্রত্যেকটিতে কিউআর কোড বসিয়ে দিতে চাই। প্রয়োজনে দেশের হাই টেকনিশিয়ানসহ সবাইকে নিয়ে কাজ করবো, যাতে কোনো ধরনের নকল কিউআর কোড করতে না পারে। খুব দ্রুত সময়ে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে চাই।’

বৈধ রিকশা শনাক্তের পাশাপাশি চালকদের একটি তালিকা ও এলাকা ভিত্তিকভাবে পোশাকের ব্যবস্থা করার করার কথা জানান ডিএনসিসি মেয়র। বলেন, ‘সঙ্গে সঙ্গে চালকদের ডাটাবেজ তৈরি করা হবে। এতে আমার বুঝতে পারবো কোন রিকশা কে চালাচ্ছে। এটি একটি দীর্ঘমেয়াদী কাজ সবার সহযোগিতায় আমরা শুরু করতে চাই।’

মেয়র বলেন, ‘আমরা প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে আলাদা আলাদা ড্রেস করে দেব। এরই মধ্যে আপনারা জানেন, গুলশান, বনানী, নিকেতনে রিকশা চালকদের ড্রেস সিস্টেম আছে। আমরা পুলিশের সহযোগিতায় এটি পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়নের জন্য কাজ করবো।’

বিষয়গুলো বাস্তবায়ন করতে ডিএনসিসির কাউন্সিলর, ট্রাফিক পুলিশ সদস্য এবং রিকশা মালিকদের সহযোগিতা চান মেয়র আতিকুল।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, ‘বর্তমানে সিটি করপোরেশনে থাকা বৈধ রিকশার ডাটা অনুযায়ী বর্তমানে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে ২৭ হাজার বৈধ রিকশা রয়েছে। এখন থেকে সব বৈধ রিকশা তার নির্দিষ্ট লেন দিয়ে চলতে পারবে। আজকে কিন্তু আমার সবাই এ বিষয়টি নিয়ে এক হয়েছি। রামপুরা থেকে প্রগতি সরনি পর্যন্ত রিকশার জন্য বাইলেন রয়েছে।’

মেয়র বলেন, ‘আপনার জানেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গতকাল (মঙ্গলবার) বলেছেন রিকশার জন্য বাইলেন করে দিতে এবং বাইলেনে রিকশা চলতে পারবে। যেখানে বাইলেন আছে এর বাইরে মূল সড়কে কোনো রিকশা চলবে না।’

মেয়রের সিদ্ধান্ত রিকশাচালক মালিক শ্রমিক সংগঠনের নেতারা মেনে নিয়েছেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, ‘তারা মেনে নিয়েছেন। আমার এ বিষয়টি নিয়ে পর্যায়ক্রমে আলোচনায় বসবো। এই সমস্যার সমাধানে আমরা ধারাবাহিক ভাবে কাজ করে যাব।’

প্রসঙ্গত, ঢাকায় চলাচলকারী বৈধ রিকশার সংখ্যা ৭৯ হাজার ৫৪৭টি। এরমধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকায় বৈধ রিকশার সংখ্যা প্রায় ২৭ হাজার। বাকি বৈধ রিকশার নিবন্ধন দক্ষিণ সিটিতে। কিন্তু পুরো রাজধানীতে অবৈধ রিকশার সংখ্যা প্রায় ১০ লাখ। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রতিদিনই রাজধানীতে নামছে অর্ধশতাধিক নতুন রিকশা।

(ঢাকাটাইমস/১০জুলাই/কারই/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :