রাতজাগা কেন ভালো নয়

ফারজানা স্মৃতি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১০:৪৫ | প্রকাশিত : ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১০:১৯

তরুণদের বেশির ভাগ এখন রাত জাগেন। রাত জেগে পড়েন। ক্লাসের অ্যাসাইনমেন্ট তৈরি করেন। কেউবা রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সময় কাটান। প্রয়োজন বা অপ্রয়োজনে এই অভ্যাসটা শরীরের জন্য ভালো নয়। অনেকের কাছেই রাত শুরু হয় রাত ১২টার পর। তারা ঘুমাতে যান ভোর বেলা। সারাদিনের কর্মব্যস্ততার কারণে অনেকে দিনের বাদবাকি কাজ রাতে সারেন। কিন্তু এই অনিয়মতান্ত্রিক জীবনযাপনের জন্য মানুষ নিজেই তার নিজের দেহে বিভিন্ন ধরনের অসুখের বাসা বানাচ্ছেন।

মাঝে মধ্যে আমাদের কোনো কাজ পড়ে যায়, যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। হয়ত সেক্ষেত্রে রাত জেগে কাজ শেষ করা যায়। সাধারণত এমন কাজ আমাদের প্রতিদিন থাকে না। তাহলে কেন রাত জাগবেন আপনি?

আমাদের সঠিক জীবনযাপনের জন্য পরিমিত ঘুম প্রয়োজন। প্রাপ্ত বয়স্কদের ৬-৭ ঘণ্টা ঘুম দরকার।

রাত জাগলে আমরা অনেক অসুখের সম্মুখীন হই বা হতে পারি।

১। রাত জাগার ফলে দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়।
২। অনেক সময় ক্যানসার হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়।
৩। হৃদরোগের ঝুঁকি দেখা যায়।
৪। স্মৃতি শক্তি কমতে থাকে।
৫। ওজন বৃদ্ধি পায়।
৬। মাথাব্যথা এবং কোমরের ব্যথা দেখা দিতে পারে।
৭। দুশ্চিন্তা বেড়ে যায়। অনেক ক্ষেত্রে মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায়।
৮। রাত জাগার কারণে ধীরে ধীরে ইনসোমিয়া রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। এতে করে রোগীর ঘুম একদম কমে যায় ঘুম হয় না বললেই চলে। 
৯। রাত জাগার ফলে অনেক সময় আলসার এর সমস্যা দেখা দেয়। আর যদি আগে থেকেই আলসার থেকে থাকে, তাহলে সমস্যা বেড়ে যায়।

(ঢাকাটাইমস/৯ডিসেম্বর/এজেড)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

ফিচার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :